Laravel Framework Basics পর্ব-১: What is Laravel Framework?

Last Updated on August 6, 2022 by Masud Alam

PHP Laravel Framework পরিচিতি:

PHP Laravel Framework পরিচিতি

PHP Laravel Framework পরিচিতি

PHP Laravel Framework কি? তা বুঝার জন্য আমাদেরকে প্রথমে জানতে হবে PHP কি? এবং Framework কি?

PHP কি?

PHP7-ELEPHANT

PHP হচ্ছে একটি সার্ভার সাইড স্ক্রিপ্টিং ভাষা, যা তৈরী করেন রাসমাস লারডোর্ফ ১৯৯৪ সালে।  যা বিশেষ ভাবে যেকোনো ডাইনামিক এবং ইন্টারেক্টিভ ওয়েব ডেভেলপমেন্ট অথবা ওয়েব ভিত্তিক সফটওয়্যার এবং ওয়েব ভিত্তিক এপ্লিকেশন বানানোর জন্য ব্যবহৃত হয়। বর্তমানে এটিকে জেনারেল পারপাস প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ ও বলা হয়। অর্থাৎ, অন্যান্য প্রোগ্রামিং ভাষা দিয়ে যা যা করা যায়, PHP দিয়েও মোটামুটি তার সবই করা যায়। এছাড়া PHP ওপেনসোর্স হওয়ায় ওয়েব প্রোগ্রামারদের কাছে অধিক জনপ্রিয় । তবে মূলত, ওয়েব ডেভেলপমেন্টের, ওয়েব ভিত্তিক সফটওয়্যার এবং ওয়েব ভিত্তিক এপ্লিকেশন বানানোর কাজেই এটি সর্বাধিক ব্যবহৃত হয়। এছাড়া পি এইচপি ওয়েবে তথ্য সংরক্ষণের ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ নিরাপত্তা প্রদান করে। পি এইচ পি কে এইচ টি এম এল (HTML) এর সাথেও ব্যবহার করা যায়। ওয়ার্ডপ্রেস, জুমলা সহ বেশ কিছু এডভান্সড ওপেনসোর্স কনটেন্ট ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম (CMS) পি এইচ পি দ্বারা তৈরি। পি এইচ পি ব্যবহার করে কাস্টম কনটেন্ট ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম তৈরি করা যায়। এছাড়া ই-কমার্স, ম্যানেজমেন্ট, অনলাইন ব্যাংকিং সফটওয়্যার ইত্যাদি তৈরিতেও পি এইচ পি ব্যাপকভাবে ব্যবহুত হচ্ছে। পি এইচ পি খুবই জনপ্রিয় একটি ভাষা, w3techs এর তথ্য অনুযায়ী পৃথিবীতে যত ওয়েব সাইট আছে তার শতকরা ৮২ ভাগই সার্ভার সাইড স্ক্রিপ্টিংয়ে PHP ব্যবহার করে। PHP ফ্রেমওয়ার্ক এ কাজ করতে হলে PHP Object Oriented Programming সম্পর্কে খুব ভালো ধারণা থাকা প্রয়োজন।

ফ্রেমওয়ার্ক কি?

PHP Framework

ধরা যাক, আপনি একজন বিল্ডিং কনস্ট্রাকশন ইঞ্জিনিয়ার এবং আপনাকে একটা বিল্ডিং তৈরি করতে দেওয়া হলো। এখন আপনাকে দুইটি অপশন দেওয়া হলো:

প্রথমত, আপনাকে একটি প্লট, বিল্ডিং এর architectural ডিজাইন এবং বিল্ডিং তৈরির যত টাকা দরকার তা দেওয়া হলো এবং বলা হলো একটি বিল্ডিং তৈরি করতে। কিন্তু আপনাকে বিল্ডিং তৈরির সামগ্রী যেমন, ইট , বালি, সিমেন্ট, রড, মিক্সার, লেবার সহ যাবতীয় অন্যান্য সরঞ্জামাদির কিছুই দেওয়া হলোনা, যেগুলোর সব কিছুই আপনাকে কালেকশন অথবা তৈরী করে বিল্ডিং এর কাজে ব্যবহার করতে হবে।

এবং দ্বিতীয়ত,আপনাকে বিল্ডিং এর প্লট, বিল্ডিং এর architectural ডিজাইন, বিল্ডিং তৈরির সামগ্রী যেমন, ইট , বালি, সিমেন্ট, রড, মিক্সার, লেবার সহ যাবতীয় অন্যান্য সরঞ্জামাদির সব কিছুই দেওয়া হল, এখন আপনাকে এগুলোকে কাজে লাগিয়ে শুধু বিল্ডিং টি তৈরী করে দিতে হবে। একজন ইঞ্জিনিয়ার হিসেবে আপনার জন্য কোনটি বেটার অপশন হবে?

নিঃসন্দেহে দ্বিতীয়টি। যদিও প্রথমটি দিয়ে কাজ করা সম্ভব, কিন্ত এর সবচেয়ে বড় প্রব্লেম হচ্ছে এখানে আপনার অনেক বেশি সময়ের প্রয়োজন হবে। যা বিল্ডিং তৈরীর সময় এবং খরচ দুটোই বেড়ে যাবে।

এক্ষেত্রে দ্বিতীয় অপশনটি ভালো। কেননা এখানে আগে থেকেই সব কিছু রেডি থাকে আর তাতে আপনার বিল্ডিং তৈরীর সময় এবং খরচ দুটোই অনেক কমে যাবে।

ফ্রেমওয়ার্ক হচ্ছে আমাদের দ্বিতীয় অপশনটির মতোই, যেখানে ওয়েব ডেভেলপমেন্ট ,অ্যাপ্লিকেশান ডেভেলপমেন্ট এবং সফটওয়্যার ডেভেলপমেন্ট এর জন্য সব কিছু রেডি থাকে এবং আপনাকে শুধু এর ব্যবহার জানতে হবে। আর তাতে আপনার ওয়েব ডেভেলপমেন্ট ,অ্যাপ্লিকেশান ডেভেলপমেন্ট এবং সফটওয়্যার ডেভেলপমেন্ট তৈরীর সময় এবং খরচ দুটোই অনেক কমে যাবে। আবার অন্য ভাবে বলতে পারি ফ্রেমওয়ার্ক হচ্ছে রেডিমেড ক্লাস ও ইন্টারফেসের কালেকশন যার মাধ্যমে আমরা বিভিন্ন ধরনের ওয়েব ডেভেলপমেন্ট ,অ্যাপ্লিকেশান ডেভেলপমেন্ট এবং সফটওয়্যার ডেভেলপমেন্ট খুব সহজে এবং কম সময়ে করতে পারি।

PHP Laravel Framework কি?

PHP এবং Framework সম্পর্কে তো জানা হলো , চলুন এবার জানি Laravel কি? বর্তমানে PHP Framework গুলোর মধ্যে সবচেয়ে শক্তিশালী এবং জনপ্রিয় ফ্রেমওয়ার্ক হচ্ছে Laravel। এটি একটি Opensource Secure PHP MVC Web Framework যা সেইসব ডেভেলপারদের জন্য তৈরী করা হয়েছে যাদের একটি সহজ এবং মার্জিত টুলকিট প্রয়োজন যা পূর্ণ-বৈশিষ্ট্যযুক্ত ওয়েব অ্যাপ্লিকেশনগুলি তৈরি করতে পারে। আরো সহজভাবে বললে, এটি একটি ওয়েব ফ্রেমওয়ার্ক যা আপনার অ্যাপ্লিকেশান তৈরি করার জন্য একটি structure এবং starting point প্রদান করে, যা আপনাকে দারুণ কিছু তৈরি করার ব্যাপারটাকে সহজ করে দেয় । বিভিন্ন অসামান্য বৈশিষ্ট্যগুলির জন্য এটি বিশ্বের বিভিন্ন পিএইচপি ওয়েব প্রোগ্রামারের মধ্যে খুব দ্রুত জনপ্রিয় হয়ে ওঠে । ২০১১ সালে Taylor Otwel প্রথম লারাভেল ডেভেলপ করেন।

একজন ডেভেলপারকে Laravel Framework একটি অভূতপূর্ব অভিজ্ঞতা প্রদান করার চেষ্টা করে এবং শক্তিশালী ফীচারগুলি প্রদান করে যেমন dependency injection, database abstraction layer, queues, scheduled jobs, unit testing এবং integration testing সহ আরও অনেক কিছু।

আপনি PHP বা এর যেকোনো ওয়েব ফ্রেমওয়ার্কে নতুন হোন বা অভিজ্ঞ হোন না কেন, Laravel হল এমন একটি ওয়েব ফ্রেমওয়ার্ক যা আপনার সাথেই গ্রো হচ্ছে এবং আপনাকে একজন ওয়েব ডেভেলপার হিসেবে আপনার প্রথম পদক্ষেপ নিতে সাহায্য করবে অথবা আপনি যখন আপনার দক্ষতাকে পরবর্তী স্তরে নিয়ে যাবেন, তখনও আপনাকে Laravel সাহায্য করবে ৷

কেন Framework হিসেবে লারাভেল কে পছন্দ করবেন?

Top-12-Benefits-of-Laravel-Framework

Top-12-Benefits-of-Laravel-Framework

একটি ওয়েব অ্যাপ্লিকেশান তৈরি করার সময় আপনার কাছে বিভিন্ন ধরণের অপশন থাকতেই পারে৷ যাইহোক, আমি মনেকরি একটা আধুনিক এবং ফুল-স্ট্যাক ওয়েব অ্যাপ্লিকেশন ডেভেলপ করার জন্য লারাভেল সেরা পছন্দ। তাছাড়াও নিম্নোক্ত ১২ টি কারণে আপনি লারাভেলকে চয়েস করতে পারেন।

১. Easiest Framework

আপনি Laravel Framework শেখার অন্যতম কারণ হতে পারে, কারণ এটিতে কাজ করা অনেক সহজ। এমনকি আপনি যদি একজন ডেভেলপার হিসেবে PHP-এর মূল বিষয়গুলি নাও জানেন, আপনি খুব সহজেই মাত্র কয়েক ঘণ্টার মধ্যে ৫-৬ পেজের ওয়েবসাইট তৈরি করতে পারেন।

২. Progressive Framework

মূলতঃ লারাভেল হচ্ছে একটি প্রগতিশীল” বা আধুনিক ফ্রেমওয়ার্ক। অর্থাৎ আপনি যেমন প্রতিদিন নিজেকে এবং নিজের জ্ঞানকে সমৃদ্ধি করছেন, একই ভাবে লারাভেল ও দিনকে দিন উন্নতি হচ্ছে। আপনি যদি ওয়েব ডেভেলপমেন্টে একদম নতুন হয়ে থাকেন, তাহলে Laravel-এর ডকুমেন্টেশন, গাইড এবং ভিডিও টিউটোরিয়ালের , বিশাল লাইব্রেরি এবং বিশাল কমিউনিটি পাবেন। যা আপনাকে দ্রুত এই সেক্টরে শিখতে এবং উন্নতি করতে সাহায্য করবে।

আর আপনি যদি একজন সিনিয়র ডেভেলপার হন, লারাভেল আপনাকে dependency injection, unit testing, queues, real-time events, এবং আরও অনেক কিছুর জন্য দরুন সব টুলস গুলো পাবেন । Laravel পেশাদার ওয়েব অ্যাপ্লিকেশন তৈরির জন্য এবং এন্টারপ্রাইজ কাজের জন্য একটা স্বয়ং সম্পর্ন ফ্রেমওয়ার্ক । এই জন্যইতো অনেক নামকরা পিএইচপি ডেভেলপমেন্ট কোম্পানি, লারাভেলকে তার গতিশীল ক্ষমতার কারণে, তাদের বড় এবং জটিল ওয়েব ডেভেলপমেন্ট প্রজেক্ট পরিচালনা করার জন্য একে পছন্দ করেছে। তাই Laravel বড় এবং জটিল ওয়েব ডেভেলপমেন্টের জন্য ডেভেলপারের অনেক সময় বাঁচাতে পারে।

৩. Scalable Framework

যার অর্থ হচ্ছে লারাভেল অবিশ্বাস্যভাবে আপনার চাহিদা অনুযায়ী সহজেই scalable বা আপগ্রেড করতে সক্ষম। আর এর কারণ হচ্ছে PHP-এর স্কেলিং-বান্ধব সুবিধা এবং Redis-এর মতো distributed Caching System যা লারাভেলকে করেছে খুবই ফাস্ট একটা ফ্রেমওয়ার্ক। প্রতি মাসে কয়েক মিলিয়ন রিকোয়েস্ট হ্যান্ডেল করতে লারাভেল অ্যাপ্লিকেশনগুলিকে স্কেল করা হয়েছে। এছাড়াও Laravel Vapor এর মতো এপ্লিকেশন দিয়ে আপনি এক্সট্রিম লেভেলের scaling করতে পারেন।

৪. Community Framework

লারাভেল PHP ecosystem এর সেরা প্যাকেজগুলিকে একত্রিত করে সবচেয়ে শক্তিশালী এবং একটি ডেভেলপার ফ্রেন্ডলি ফ্রেমওয়ার্ক হিসেবে নিজেকে তৈরী করেছে । এছাড়াও, বিশ্বজুড়ে হাজার হাজার প্রতিভাবান প্রোগ্রামার এ ফ্রেমওয়ার্ক এ প্রতিদিন অবদান রাখছেন । কে জানে, হয়তো আপনিও একদিন লারাভেল একজন contributor হয়ে উঠবেন।

৫. Secure Framework

Laravel Framework বেছে নেওয়ার অন্যতম কারণ হতে পারে এর security. যদিও এমন কোন Framework নেই যা Cyber Attack থেকে সম্পূর্ণ সুরক্ষিত। মূলতঃ এটি সম্পূর্ণভাবে একজন লারাভেল ডেভেলপারের উপর নির্ভর করে, এটি নির্ভর করে একজন কীভাবে কোড এবং এর সামগ্রিক কাঠামো লেখেন তার উপর। কিন্তু, লারাভেল hash Password system ব্যবহার করে। অর্থাৎ লারাভেল নিশ্চিত করে যে , কোনো পাসওয়ার্ড প্লেইন টেক্সটে সংরক্ষিত হবে না। এইভাবে, যখনই কোনো ইউজার সিস্টেমে লগইন করে তখনই Bcrypt Hasing Algorithm ব্যবহার করে এবং এনক্রিপশনে একটি স্বয়ংক্রিয় টোকেন তৈরি করে। যা আপনার ওয়েবসাইটে অননুমোদিত অ্যাক্সেস এড়াতে সহায়তা করবে।

এই ফ্রেমওয়ার্কটি একটি নির্দিষ্ট স্তরের নিরাপত্তা প্যারামিটার অফার করে যা অন্য কোনো ফ্রেমওয়ার্ক এ পাওয়া যায় না। Laravel আপনাকে অফার করে CSRF টোকেন যা আপনার প্রজেক্টের নিরাপত্তার দিকটির যত্ন নেয়। এই টোকেনগুলি POST-এ প্রতিটি request চেক করে এবং যে কেউর থেকে রক্ষা করে যে অনুরোধটি পেতে POST পরিবর্তন করতে পারে। আর এইভাবে এটি আপনার প্রজেক্টকে আরও সুরক্ষিত করে। এছাড়াও Laravel আপনার ডাটাবেসে তার prepared SQL statements এর মাধ্যমে যে কোনো SQL Injection আক্রমণ হতে বাধা দেয়।

৬. Built-in project Environment

লারাভেল ফ্রেমওয়ার্কে, আপনি একটি integrated Laravel project environment পাবেন যা ডেভেলপারদের জন্য একটি প্রজেক্ট সফলভাবে সহজ করে তোলে। এটি ওয়েব ডেভেলপমেন্টের জন্য কোডিং করার একটি কাঠামোগত উপায় অফার করে যা ঝামেলা-মুক্ত পদ্ধতিতে দীর্ঘ এবং জটিল প্রোগ্রামিং কাজগুলি করতে একজন ডেভেলপারকে সহায়তা করে।

৭. Template engine

লারাভেল প্ল্যাটফর্মে রয়েছে লাইটওয়েট টেমপ্লেট ইঞ্জিন। যাকে লারাভেলের বাসায় Blade Templeting বলা হয়। যার মাধ্যমে আপনি dynamic content seeding সহ দারুনসব লেআউট তৈরি করতে পারবেন।

৮. Object-oriented libraries and eloquent ORM

Laravel Framework বিভিন্ন অবজেক্ট-ওরিয়েন্টেড লাইব্রেরি এর সমন্বয়ে তৈরি করা হয়েছে এবং এটি নিজেই বিভিন্ন পৃথক অবজেক্ট-ওরিয়েন্টেড লাইব্রেরিতে বিভক্ত রয়েছে। এই লাইব্রেরী গুলোতে password resetting, active users monitoring, encryption mechanism, Cross-Site Request Forgery (CSRF) সুরক্ষা সহ আরও অনেক চমৎকার বৈশিষ্ট্য রয়েছে। Laravel Framework সব সময় হালনাগাদ PHP Version এবং তার হালনাগাদ প্রিন্সিপাল গুলোর উপর কাজ করে, যা ডেভেলপারদের মডুলার, রেস্পন্সিভ এবং ইউজার ফ্রেন্ডলি ওয়েব ডেভেলপমেন্ট তৈরি করতে দেয়।

Laravel এর Eloquent Object Relationship Mapping (ORM) হাইলাইট করে যা আপনাকে আপনার ডাটাবেস থেকে দ্রুত ডেটা পুনরুদ্ধার করতে সহায়তা করে। এই বৈশিষ্ট্যটি আন্তঃলিঙ্কিং ডেটাবেস অবজেক্টে গুলোর মধ্যে সম্পর্ক তৈরি করতে সহায়তা করে।

৯. Artisan commands

আরেকটি বৈশিষ্ট্য যা লারাভেলকে শীর্ষস্থানীয় পিএইচপি ফ্রেমওয়ার্ক করে তোলে তা হল Artisan নামক command-line ইন্টারফেস। এটি ডেভেলপারদের ক্লান্তিকর এবং পুনরাবৃত্তিমূলক প্রোগ্রামিং কাজগুলি স্বয়ংক্রিয় করার সুবিধা দেয়। ডেভেলপাররা MVC ফাইল তৈরি করতে এবং এর কমান্ডগুলির সাথে ডেটা কনফিগারেশন পরিচালনা করতে এই tools টি ব্যবহার করতে পারে। এটি অ্যাপ্লিকেশন তৈরি করতে এবং ডেটা স্থানান্তর এবং পরিচালনায় সহায়তা করতে একটি শক্তিশালী Symfony Console component ব্যবহার করে।

১০. Database migration

Laravel Framework এর অন্যতম ফীচার হচ্ছে এর মাইগ্রেশন ফীচার। এটি ডাটাবেস মাইগ্রেশনকে সহজ করে তোলে। এসকিউএল সার্ভার বা মাইএসকিউএল-এর মতো ডাটাবেসের মধ্যে যে কোনো compatibility সমস্যা খুব সহজেই সমাধান করে। এটি লারাভেলের কনফিগারেশন সম্পর্কিত যে কোনো পরিবর্তন বা ডাটাবেস স্যুইচ করার কার সঠিক উপায়ে করার নিশ্চিত করে।

Artisan Console ব্যবহার করে আপনি এর asset Packaging, database migration এবং seeding এর কাজ খুব সহজে করতে পারেন। এই ফীচারটির মাধ্যমে ইউজাররা সহজে এবং স্বাচ্ছন্দ্যের সাথে কোড স্থানান্তর করতে পারেন।

১১. MVC Architecture Support

Laravel Framework ওয়েব আর্কিটেকচারাল প্যাটার্ন Model-View-Controller (MVC) ব্যবহার করে থাকে। এই প্যাটার্ন ব্যবহার করে ছোট অথবা বড় যেকোনো অ্যাপ্লিকেশন তৈরি করা অনেক সহজ। পিএইচপি ব্যবহার করে একটি প্রজেক্ট ডেভেলপ করার সময়, আপনি সাধারণত আনস্ট্রাকচার্ড কোড নিয়ে কাজ করেন। MVC আপনাকে স্ট্রাকচার্ড উপায়ে ছোট অথবা বড় যেকোনো অ্যাপ্লিকেশন তৈরি করতে সহায়তা করে। এটি তার সহজ রক্ষণাবেক্ষণের জন্য আপনার কোডিং কাঠামোকে সহজ করে।

১২. Task management and scheduling

একটি অ্যাপ্লিকেশন ডেভেলপ করার সময়, কিছু নির্দিষ্ট কাজ একজন ডেভেলপারকে বার বার করতে হয়। অতীতে, ডেভেলপাররা এই কাজটি করার জন্য সার্ভারে Cron Schedule কনফিগারেশন এন্ট্রি করে রাখতে হত। যাইহোক, এটি আপনার জন্য একটা পেইন হয়ে উঠতে পারে কারণ আপনার টাস্ক শিডিউল আর সোর্স কন্ট্রোলে নেই এবং আপনার বিদ্যমান ক্রন এন্ট্রি দেখতে বা অতিরিক্ত এন্ট্রি যোগ করতে আপনাকে অবশ্যই আপনার সার্ভারে SSH করতে হবে।

লারাভেলের command scheduler এর মাধ্যমে আপনার সার্ভারে নির্দিষ্ট কাজগুলি পরিচালনা করার জন্য আপনাকে আপনার লারাভেল অ্যাপ্লিকেশনের মধ্যেই আপনার command schedule সাবলীলভাবে এবং স্পষ্টভাবে ডিফাইন করার সুযোগ দেয়। command schedule ব্যবহার করার সময়, আপনার সার্ভারে শুধুমাত্র একটি একক cron প্রয়োজন। আপনার task schedule গুলো app/Console/Kernel.php ফাইলের schedule method সংজ্ঞায়িত করা । আর এটি শুরু করার জন্য, মেথডের মধ্যে একটি সাধারণ উদাহরণ সংজ্ঞায়িত করা হয়েছে।

PHP Laravel Framework শেখার আগে কি কি বিষয় জানতে হবে?

PHP Laravel Framework শেখা শুরু করার আগে, আপনাকে অবশ্যই নিম্নের বিষয় গুলো জানতে হবে:

  • PHP
  • Object Oriented Concepts এবং
  • MVC structure সম্পর্কে পরিষ্কার ধারণা।
  • আর Laravel Framework এর Dependency Manage করার জন্য Composer অবশ্যই ইন্সটল করা থাকতে হবে।

Laravel Framework কিভাবে ইনস্টল করব?

Laravel Framework Install করতে হলে আপনার লিনাক্স অথবা উইন্ডোস সার্ভার এ PHP, MySql, Apache/nginx ইন্সটল করা থাকতে হবে। এ ছাড়া আপনার PHP Server এর PHP নতুন ভার্সনের সাথে নিম্নোক্ত Extension গুলো থাকতে হবে :

  • PHP >= 8.0
  • BCMath PHP Extension
  • Ctype PHP Extension
  • cURL PHP Extension
  • DOM PHP Extension
  • Fileinfo PHP Extension
  • JSON PHP Extension
  • Mbstring PHP Extension
  • OpenSSL PHP Extension
  • PCRE PHP Extension
  • PDO PHP Extension
  • Tokenizer PHP Extension
  • XML PHP Extension

আর লারাভেল ফ্রেমওয়ার্ক এর ডিপেন্ডেন্সি ম্যানেজ করার জন্য Composer অবশ্যই ইন্সটল করা থাকতে হবে। উইন্ডোস মেশিন হলে এই লিংক থেকে Composer টি ইন্সটল করে নিতে পারেন। আবার লিনাক্স কিংবা ইউনিক্স মেশিন হলে টার্মিনালে নিচের কমান্ডটি লিখতে হবেঃ

sudo apt install composer

composer সহ আমাদের requirement এর সব কিছু ইনস্টল হলে এখন আমরা ধাপে ধাপে Laravel Installation দেখবো , চলুন ধাপ গুলো দেখে install করা যাক :

প্রথম ধাপ: প্রথম প্রথমে চেক করুন আপনার কম্পোজার টি running কিনা? এর জন্য আপনাকে composer লিখে enter press করতে হবে। যদি running থাকে তাহলে নিচের মতো ফলাফল আসবে :

Windows Output:

composer running on windows

Linux Output:

composer running on linux

দ্বিতীয় ধাপ: এইবার আপনি আপনার যেই ফোল্ডার এ laravel Project Insall করবেন , সেই ফোল্ডার এ নেভিগেট করুন। এরপর নিচের কমান্ডটি লিখুনঃ

composer create-project laravel/laravel your-project-name

এখানে your-project-name এর জায়গায় আপনার Project Name দিতে হবে। আমরা এখানে w3programmers নাম দিয়েছি: নিচের screenshot টি দেখুন :

laravel installation

laravel installation

ধাপ ৩: এবার আপনাকে আপনার project folder এ নেভিগেট করতে হবে এবং নিচের command টি রান করতে হবে।

php artisan serve

নিচের screenshot টি দেখুন :

PHP Artisan Serve

ধাপ ৪: এবার আপনাকে আপনার যে কোনো ব্রাউজার এ গিয়ে http://127.0.0.1:8000/ লিখে এন্টার দিন। আপনি নিচের স্ক্রিনশট এর মতো আউটপুট পাবেন :

PHP Laravel Installation Success

আজ এই পর্যন্ত, আল্লাহ হাফেজ।

7 comments to “Laravel Framework Basics পর্ব-১: What is Laravel Framework?”

Leave a Reply